দাবানল থেকে বাঁচতে মু’সলিম-খ্রিস্টানদের নামাজ আদায়, অবশেষে রহমতের বৃষ্টি

152

গত সেপ্টেম্বর থেকে ভ’য়াবহ দাবানল ঠেকাতে দিনের পর দিন প্রা’ণপাত করে যাচ্ছেন অস্ট্রেলিয়ার অ’গ্নি নির্বাপক কর্মী এবং সাধারণ মানুষ। অবশেষে আজ ৫ জানুয়ারি রবিবার স্থানীয় সময় সকালে সামান্য হলেও বৃষ্টির দেখা মিলেছে। হাফিংটন পোস্ট এবং বিবিসি বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। যদিও এই বৃষ্টি আ’গুন নেভাতে খুব একটা কার্যকর হচ্ছে না।

এদিকে বিবিসির এক সাংবাদিক বৃষ্টিভেজা গাড়ির উইন্ডোর ভিডিও দিয়ে টুইট করেছেন, ‘আমাদেরকে সকল অ’গ্নিনির্বাপণ কর্মীরা বারবার বলছিল, বৃষ্টি ছাড়া এই আ’গুন থামানো অসম্ভব। অবশেষে এটা হয়েছ। কিন্তু ভ’য়াবহ আ’গুন থামাতে অনেক, আরও অনেক বেশি বৃষ্টির প্রয়োজন।’

এদিকে ফায়ার সার্ভিসের বরাত দিয়ে হাফিংটন পোস্ট শিরোনাম করেছে, ‘এই সামান্য বৃষ্টি অস্ট্রেলিয়াকে আ’গুনের হাত থেকে রক্ষা করবে না।’

এর আগে আজ দাবানল থেকে মুক্তির জন্য এক মাঠে সমবেত হয়ে প্রার্থনা করলেন খ্রিস্টান ও মু’সলিম’রা। খ্রিস্টান ও মু’সলিম’রা একত্রে একই মাঠে প্রার্থনা করলেন ভ’য়ঙ্কর এই দাবানল পরিস্থিতি থেকে দেশ ও দেশের মানুষের জন্য। এই প্রার্থনায় যোগ দিয়েছেন প্রায় ৫০ জনের বেশি মু’সলিম নারী পুরুষ ও শি’শু।

অ্যাডিলেডের বনিথন পার্কে প্রিস্ট প্যাট্রিক ম্যাকইনার্নি নামাজের জন্য উপাসকদের সঙ্গে যোগ দেন অস্ট্রেলিয়ার এই মু’সলিমগণ। সবাই একসঙ্গে প্রার্থনা করেন বৃষ্টির জন্য। এছাড়া প্রার্থনায় দাবানলে ক্ষত্রিস্তদের জন্য ও প্রার্থনা করা হয়। এরপরই শুরু হয় রহমতের বৃষ্টি।

এদিকে সোশ্যাল সাইটে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে জলন্ত্ব বনের পাশে বৃষ্টিতে ভিজে অ’গ্নি নির্বাপক কর্মীদের উল্লাস করতে দেখা গেছে। এখনও প্রচণ্ড তাপমাত্রা অস্ট্রেলিয়ায়। বনের পর বন জ্বলছে। তার মাঝে প্রকৃতির সুদৃষ্টির আভাস দেখে আনন্দিত দেশটির মানুষ। বৃষ্টির এই ধারা যেন বেড়ে যায় সেটাই প্রার্থনা সবার।