একের পর এক রাজ্যে ক্ষমতা হারাচ্ছেন মোদি

359

স্টাফ রিপোর্টার,প্রকাশ:  ২৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৬:৪ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য ঝাড়খণ্ডে বিধানসভা নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল বিজেপিকে হারিয়ে জয় পেয়েছে কংগ্রেস জোট। ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চা (জেএমএম), কংগ্রেস ও রাষ্ট্রীয় জনতা দল (আরজেডি) জোট সংখ্যাগরিষ্ঠ আসন পেয়েছে।

এক বছরের মধ্যেই এ নিয়ে পরপর ৫টি রাজ্যে হেরে গেল ক্ষমতাসীন বিজেপি। গত বছর কংগ্রেসের কাছে রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ ও ছত্তিশগড় হারিয়েছিল দলটি।

ঝাড়খণ্ডে মোট ৮১টি আসনে এবার নির্বাচন হয়েছে। ৩০ নভেম্বর থেকে ২০ ডিসেম্বর পর্যন্ত পাঁচ ধাপে হয় ভোটগ্রহণ। সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়ে রাজ্য সরকার গঠন করার জন্য একটি দল বা জোটকে পেতে হয় কমপক্ষে ৪১টি আসন।

গতকাল সোমবার সকাল থেকে শুরু হয় ভোটগণনা।
এনডিটিভি জানায়, চূড়ান্ত ফলাফলে ৮১ আসনের মধ্যে ক্ষমতাসীন বিজেপি পেয়েছে ২৫টি আসন। আর কংগ্রেস জোট পেয়েছে ৪৭টি আসন। এর মধ্যে জেএমএম ৩০টি, কংগ্রেস ১৬টি এবং আরজেডি ১টি আসন পেয়েছে।
নাগরিকত্ব (সংশোধনী) আইন নিয়ে ভারতজুড়ে যখন একের পর এক অস্থির পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে, ঠিক তখনই ঝাড়খণ্ড বিধানসভা নির্বাচনে ধাক্কা খেল বিজেপি। ভোটের ফলাফলে ভরাডুবি পদ্ম শিবিরে।

এর আগে, শিবসেনার সঙ্গে জোট ভেঙে যাওয়ায় পশ্চিমে মহারাষ্ট্র হাতছাড়া হয়ে গেছে বিজেপির। সে তুলনায় ছোট রাজ্য হলেও পূর্বে ঝাড়খণ্ড ছিল বেশ গুরুত্বপূর্ণ। এখন সেটাও হাত থেকে ফসকে গেল। চলতি বছর লোকসভা নির্বাচনে জেতার পরপরই পিছলে গেল মহারাষ্ট্র।

এদিকে ঝাড়খণ্ডে জেএমএম-কংগ্রেস-আরজেডি জোটের জয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন জোট প্রধান হেমন্ত সোরেন। এটি হবে তার দ্বিতীয় দফা মুখ্যমন্ত্রিত্ব।
জয়ের পর রাজ্যবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন হেমন্ত সোরেন। অন্যদিকে ঝাড়খণ্ডে এ জোটের জয়ে হার মেনে নিয়ে টুইটবার্তায় অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, বিজেপি প্রধান অমিত শাহ। এছাড়া শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধী, মমতা ব্যানার্জিসহ অনেকে।