আসামেও গু’লি চলেছে, বাংলাতেও চলবে : দিলীপ ঘোষ

567

স্টাফ রিপোর্টার: এবার বাঁকুড়ার সভা থেকে এনআরসি ও নাগরিক আইন সংশোধনী ইস্যুতে মুখ্যমন্ত্রীকে একহাত নিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

তিনি বলেন, মুসলিমরাই মুখ্যমন্ত্রীর ভোটবাক্স ভরায়, সেই কারণে ভোটবাক্সের কথা ভেবেই নাগরিক আইন সংশোধনীর বিরোধিতায় পথে নেমেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি, এদিন রাষ্ট্রমন্ত্রী সুরেশ অঙ্গদির মন্তব্যে সায় দিয়ে সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করলে অভিযুক্তদের গু’লি করা হবে বলে সাফ জানালেন দিলীপ ঘোষ।

শনিবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুরে বাঁকুড়া শহরের হিন্দি স্কুল ময়দান থেকে তামিলবাঁধ ময়দান পর্যন্ত মিছিলে পা মেলান বিজেপির রাজ্য সভাপতি তথা সাংসদ দিলীপ ঘোষ। মিছিল শেষে তামিলবাঁধ ময়দানে একটি সভা করেন দিলীপবাবু। সেখানেই তিনি বলেন, মানুষের জন্য নয়, ভোটবাক্সের কথা ভেবেই নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় সুর চড়াচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কারণ, মুখ্যমন্ত্রী জানেন মুসলিমরা এদেশে না থাকলে কেউ তাঁকে ভোট দেবে না।

ফিরহাদ হাকিমকে কেন মেয়রের আসনে বসানো হয়ছে, তা নিয়েও কটাক্ষ করেন দিলীপ ঘোষ। সেইসঙ্গে শেষ কয়েকদিনে রাজ্যের পরিস্থিতিতে পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। শালীনতার সীমা অতিক্রম করে সাংসদ সুভাষ সরকারের পথে হেঁটেই মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করেন দিলীপ ঘোষ।

বলেন, পুলিশ কেন কোনও কঠোর পদক্ষেপ নেয়নি? তাঁরা কি মুখ্যমন্ত্রী আঁচলের নিচে লুকিয়ে ছিল?পাশপাশি, সভা থেকে তিনি সাফ জানিয়ে দেন, আসামেও গু’লি চলেছে। বাংলার যেখানে অশান্তি হবে, সেখানেও গু’লি চলবে। সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করলে মরতেই হবে। কাউকে ছাড়া হবে না। সব জায়গায় বন্দুক চলবে, কত জায়গায় মুখ্যমন্ত্রী সামলাবেন?”

সেইসঙ্গে ২০২১ এর নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ২১-এর নির্বাচনে বিজেপি রাজ্যে ক্ষমতায় আসবেই। মুখ্যমন্ত্রী এখন যেভাবে পথে ঘুরছেন। ২১-এর পর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী হয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরবেন। হবেই আর মুখ্যমন্ত্রী পদচ্যুত হবেনই। দিলীপ ঘোষের এদিনের মন্তব্যকে ঘিরেই দানা বাঁধছে বিতর্ক।