যেভাবে উদ্ধার করা হলো গভীর কূপে পড়া সেই শিশুকে

স্টাফ রিপোর্টার: প্রকাশিত: ৮:৪৯ পূর্বাহ্ণ, ২৭ অক্টোবর ২০১৯ খেলতে খেলতে হঠাৎ পরিত্যক্ত কূপে পড়ে যায় ২ বছর বয়সী এক শিশু। শুক্রবার (২৫ অক্টোবর) বিকেলে ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের তামিলনাড়ুর তিরুচিরাপল্লি জেলার মানাপ্পারাই শহরের অদূরে নাদুক্কাট্টুপাট্টি গ্রামে।

প্রায় ১৮ ঘণ্টা ওই গভীর কুয়োতেই আটকে ছিল শিশুটি। তবে শেষ পর্যন্ত বাচ্চাটিকে উদ্ধার করে ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসপন্স ফোর্স (এনডিআরএফ)-এর বিশেষ টিম।জানা যায়, বিকেলে বাড়ির অদূরেই বাবার সঙ্গে খেলছিল শিশু সুরজিত্‍‌ উইলসন।

সেখানেই ছিল ২৫ ফুট গভীর একটি পরিত্যক্ত কূপ। সেই কূপের মুখ ছিল অনাবৃত। আচমকা খেলতে খেলতে সেই কূপে পড়ে যায় সুরজিত্‍‌। শিশুটির বাবা তখনই দমকল বাহিনীকে খবর দেন। খবর যায় উদ্ধারকারী দলের কাছেও।শনিবার প্রায় দুই ঘণ্টার চেষ্টায় বাচ্চাটিকে উদ্ধার করা হয়। স্থানীয় পুলিশের সিনিয়র অফিসার জিয়াউল হক জানান, খবর শুনেই ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ।

খবর দেওয়া হয় জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলাকারী দলকেও।উদ্ধারকারী দল ঘটনাস্থলে পৌঁছনোর পর যে কুয়োতে শিশুটি পড়ে গিয়েছিল তার পাশে একটি সুড়ঙ্গ খোঁড়ার কাজ শুরু করে দেয়। উদ্দেশ্য এই সুড়ঙ্গ দিয়ে প্রথমে কাদামাটি বের করে আনা হবে। তারপর দুই বছরের সুজিতকে উদ্ধার করে ওই একইপথে বের করে আনা হবে। কিন্তু সুড়ঙ্গ খোঁড়ার সময় পাথরে আঘাত লাগে। সেই সময়েই খোঁড়া বন্ধ করে দেওয়া হয়।

এনডিআর টিমের বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা ছিল, যে কোনওভাবে খুঁড়তে গিয়ে এই পাথর আলগা হয়ে গেলে শিশুটির বিপদ হতে পারতো। তবে এ যাত্রায় বড় ধরনের কোনও অঘটন ঘটেনি।

একটি পাইপে করে দড়ি পাঠানো হয়েছিল কুয়োর তলায়। তবে শিশুটির হাতে সেই দড়ির ফাঁস জড়িয়ে উপরে তোলার সময় শেষ মুহূর্তে আলগা হয়ে যায় হাতের বাঁধন। পরে অবশ্য দীর্ঘক্ষণের চেষ্টায় পর শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *